তোমরা যারা ডেথ রেস খেলো

১. কিছুদিন আগে আমার সাথে দুইজন ছাত্রী দেখা করতে এসেছে। রাগে দুঃখে ক্ষোভে তাদের হাউমাউ করে কাঁদার মত অবস্থা, কিন্তু বড় হয়ে গেছে বলে সেটি করতে পারছে না। তারা দুজনেই খুবই ভালো ছাত্রী, তারা ঢাকায় থাকে এবং প্রতিদিন মহাসড়কে দীর্ঘপথ জার্নি করে বিশ্ববিদ্যালয়ে যায়। যারা বয়সে তরুণ এবং মেধাবী তাদের নিয়মিত বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়াটা এক অর্থে বাধ্যতামূলক। সবুজ ক্যাম্পাস নিয়ে তাদের একটা স্বপ্নও থাকে। কিন্তু কি ভয়ানক ব্যাপার, আমি সেটা ভেবে এক্কেবারে শিউরে উঠলাম। তাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়ার জন্য কত ঝক্কি ঝামেলা পোহাতে হয়। তারা সেই শৈশব থেকেই কত সংগ্রাম করে বিশ্ববিদ্যালয়…

Read More

যে ‘দিদি’ এবং ‘ভাই’ আমাদের ভাবায়

জয়দেবপুর রেল জংশন থেকে সেই সুনামগঞ্জ কতটা পথ! সড়ক যোগাযোগের কথা বাদ দেয়া যাক। সরাসরি রেলপথেও সেখানে যাওয়ার সুযোগ কম। তবু শয়নে-স্বপনে নয়, যাপিত জীবনেই এমন কিছু ঘটনা ঘটে যায়, যা জয়দেবপুর ও সুনামগঞ্জের ভৌগোলিক সীমারেখা এক করে দেয়। আর অদ্ভুতভাবে দুটি ঘটনাই ঘটেছে ফুটপাতে। প্রথমোক্ত ঘটনাটি মাত্র সপ্তাহখানেক আগের। ইতিহাসের অনার্স প্রোগ্রামের ক্লাস নিয়ে বাউবির ঢাকা কেন্দ্র থেকে জয়দেবপুর ফিরছি ক্লান্ত হয়ে। বাস-বাইক-রেল তিন ধরনের বাহনে যাতায়াত করে অনেকটাই ত্রিশঙ্কুতে পড়েছি। দ্রুত বাসায় ফেরার তাড়া থাকায় থানা রোডের মুখের যানজট এড়িয়ে মন্দিরের ভেতর দিয়ে হাঁটতে থাকি। অনেকটা অস্বাভাবিকভাবে জনৈক…

Read More

আমার প্রথম সন্দ্বীপ দর্শন

আনুমানিক তিনটা ১০ মিনিট। শুনশান রাতের নীরবতা খান খান করে ছুটতে থাকা বাসটা হঠাৎ থমকে দাঁড়ালো চট্টগ্রামের ছোট কুমিরা ফেরিঘাটের বাসস্ট্যান্ডে। বিস্ময়ের প্রথম ধাক্কা সামলে নিয়ে জানতে চাইলাম কন্ডাকটরের কাছে এটা কি কুমিল্লা নাকি কুমিরা। সে সম্মিত ফিরে জানায় কুমিরা। আমি জানতে চাইলাম বড়টা নাকি ছোট টা। সে বলে ছোটটা। সুতরাং আর রেহাই নাই। বাসের সিটে বসেই শীতের সঙ্গে পাঞ্জা লড়তে হচ্ছিলো। তখন যে বাস থেকে নামতে হবে এটা ভেবেই গায়ে কাঁটা দিচ্ছিলো। বাস থেকে নেমে পড়লাম ছোট কুমিরায়। মানুষ দূরের কথা, পুরো রাস্তার চারপাশে একটা কুকুর পর্যন্ত চোখে পড়লো…

Read More

দীপেশ চক্রবর্তীর মুখোমুখি

দীপেশ চক্রবর্তী! একটা নাম, একজন ইতিহাসবিদ। কেউ কেউ বলবেন তিনি নিজেই এখন ইতিহাস। একটু পেছনে যাই। পোস্ট কলোনিয়াল থিওরি এবং সাব-অলটার্ন স্টাডিজের অন্যতম হর্তকর্তা এ শিক্ষাবিদ উচ্চশিক্ষার প্রথমে খুব সম্ভবত পদার্থবিদ্যার স্নাতক এরপর এমবিএ পাস। পরিশেষে ইতিহাস গবেষক হয়ে ধন্য করেছেন সবাইকে। গত কদিন অবাক চোখে চেয়ে দেখছি প্রাজ্ঞজন দীপেশ চক্রবর্তীকে। আরও দেখছি উনাকে নিয়ে ইতিহাস পাগল বাঙ্গালের উচ্ছাসের অন্ত নেই। ভদ্রলোকের বর্তমান বলছে তিনি শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসের অধ্যাপক। তিনি এর বাইরে আরও কয়েকজটি বিশ্ববিদ্যালয়ে এই ইতিহাস নিয়েই বক্তব্য পেশ করেন, ক্লাস নেন আরও কত কি করেন। পাশাপাশি কিছু ইতিহাস জার্নালেরও…

Read More

সুমন ভাইয়ের হারারি পাঠ

গেলো বছর ম্যানচেস্টার এয়ারপোর্ট এ অপেক্ষা করতেছি বেলফাস্ট এর ফ্লাইট ধরার জন্য। হাতে যেহেতু সময় আছে তাই বই এর দোকানে গিয়ে বই-পত্র হাতাচ্ছি। একটা বই পছন্দ হলো: আমাদের এখানকার নর্থ সী বা উত্তর সাগর কিভাবে ইউরোপের ইতিহাস ও জাতি গঠনে ভূমিকা রেখেছে সেই বিষয়ে লেখা। বইটা নিয়ে দাম চুকাতে যাবো, হটাৎ ‘স্যাপিয়েন্স’ বইটার উপরে নজর গেলো। হাতে নিয়ে পিছনের কভার পড়া শুরু করলাম। তার পরে ভিতরের প্রথম কয়েক পৃষ্ঠা! ব্যাস! সর্বনাশ হয়ে গেলো! চোখ থেকে সরাতে পারছি না। সহজ ভাষায়, কৌতুকের মাধ্যমে নোয়া হারারি আমাকে টেনে নিয়ে যাচ্ছে ৭০ হাজার বছর…

Read More

অভিযোজন এবং সংস্কৃতির গল্প

সাময়িকভাবে জয়দেবপুর চলে আসার আগে মিরপুর ছিল আমার বসবাস। আর আদি নিবাস বলতে গেলে ঈশ্বরদী। আমি প্রাগৈতিহাসিক মানুষের রক শেল্টার, কেভ আর যাযাবর জীবনের সঙ্গে নিজের সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডকে মেলাতে চেষ্টা করছিলাম। বিশেষ করে আমার কম্পিউটার, ট্যাব, ল্যাপটপ আর বই নিয়ে ছোটাছুটি পাথর যুগের মানুষের ছোটাছুটি ছিল তাদের হাতিয়ার নিয়ে। আমার জীবন ও জীবিকা যেমন নির্ভর করে উপরোক্ত উপকরণের উপর তেমনি তাদের শিকার ও সংগ্রহনির্ভর জীবনে গুরুত্বপূর্ণ ছিল হাতিয়ার। যাযাবর জীবন থেকে স্থায়ী আবাসব গড়ে তোলার ক্ষেত্রে পরিবেশ অনেক গুরুত্বপূর্ণ প্রণোদনা হিসেবে কাজ করেছিল। এখানে ক্ষেত্রবিশেষে নানা অনুসঙ্গ যুক্ত হয় তাদের…

Read More

বাঙ্গাল বিনোদনে বাতুলতার নৃ-বিজ্ঞান

কুমিরের কান্না শেষ হওয়ার আগে আমাদের কি মনে পড়ে রুবেল এবং হ্যাপির ঘটনা? নিছক ফালতু এবং প্রচলিত ইতরামিগুলোর মধ্যে অন্যতম। তবে এই বিষয়টি আমার কাছে অন্যদিক থেকে গুরুত্বপূর্ণ। পাশ্চাত্যের অন্ধ অনুকরণ করতে গিয়ে উদ্ভাবনে অক্ষম বাংলাদেশী আবুল টাইপ নৃবিজ্ঞানীদের সামনে কিছু প্রশ্ন হাজির করার জন্য এটার আবেদন রয়েছে। আফ্রিকান সমাজ, সামোয়া কিংবা নিউগিনির এক মেয়ের বহুবিবাহ নীতি, পাবলিক সেক্স, মাল্টি সেক্স এগুলো নিয়া উত্তেজনাকর কথা বলেন অনেক নৃবিজ্ঞানী। অনেক ক্ষেত্রে তাদের বাক্যবাণে সেমিনার অর্গ্যাজম ঘটার উপক্রম হয় অতি উত্তেজনায়। তাদের অনেকে বলেন অমুক সমাজে নাই, তমুক সমাজ এটা করেনা। সুতরাং বাংলাদেশেও…

Read More

যে দেশে ছেলেরা কোনো পাবলিক পরীক্ষায় পাস করে না !!

ডেইলি স্টারের এই ছবিটা দেখলে বোঝা যায় ছেলেরা কেনো কোনো পাবলিক পরীক্ষায় পাস করতে পারে না। অনলাইনের যুগে মেয়েরা কেনো পরীক্ষার ফল আনতে স্কুলে গিয়ে ভিড় করে? এই প্রশ্নের উত্তরও এখানে আছে। সবকিছুতে ফাজলামির একটা শেষ থাকে। কিন্তু বাংলাদেশের ক্ষেত্রে এটাও মনে হয় হাজার বছরের ঐতিহ্য।

Read More

প্রতিবাদীরা পরাজিত নয়

আমার অনেক কষ্ট লাগে, আবার করুণাও হয় ঐসব সিনিয়র প্রফেসর মহোদয়ের জন্য। উনারা একহাতে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে ধ্বংস করছেন, অন্যহাতে বিষেদগার করছেন এখানে লেখাপড়া হয় না। তারা নির্লজ্জের মত বলে বেড়াচ্ছেন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে এখন শিক্ষার্থীদের কোয়ালিটি আগের মত নাই, সেখানকার শিক্ষার্থীরা লেখাপড়া করে না, কিছু জানে না। আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্ম দেশটাকে অন্ধকারের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। কিন্তু ধর্মাবতার! আপনারা শিক্ষক নিয়োগ দেয়ার সময় যোগ্যদের বদলে নিজেদের চামচাকে বেছে নিবেন। আপনারা ক্লাস না নিয়ে টাকার লোভে গিয়ে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে বসে থাকবেন। যে সময়টা আপনাদের গবেষণা করা কিংবা অন্য কারো গবেষণায় হেল্প করার কথা…

Read More

নামাজ নাই রোজাও নাই, ইফতারি না করে কাফের হবো নাকি?

বেশিরভাগ বাঙালি মনে করেন নামাজ নাই রোজাও নাই, ইফতারি না করে কাফের হবো নাকি। তাই ছোলা-পিঁয়াজু, বেগুনী কিংবা চপ আর জিলাপী-বুন্দিয়া এগুলো আমাদের হাজার বছরের ঐতিহ্য। ডায়েটিস্টদের শতশত ঘ্যানঘ্যান প্যানপ্যান আর গ্যাস্ট্রোলজির ডাক্তারদের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে আমরা আর যাই করি ছোলা-পিঁয়াজু বেগুনীমুক্ত রজমান কল্পনাও করতে পারি না। বাঙালি জীবনে এমন কল্পনা অনেকটা হ্যান্ডেলবিহীন সাইকেলের মতো। তাই ছোলা পিঁয়াজু যখন খাবেন একটা বিষয়ে খেয়াল রাখুন ভাজার তেলটা যেন নতুন এবং বিশুদ্ধ হয়। কারণ বাংলাদেশের বেশিরভাগ রেস্তোঁরার বয়স আর তাদের ব্যবহৃত তেলের বয়স কাছাকাছি। বেহুদা হুজুরদের হুজুরদের ফতোয়া কিংবা বেয়াক্কেল প্রগতীশীলতা ভেক…

Read More