গৌড়াধিপতি শশাঙ্ক

বিহারের রোটাসগড় পাহাড়ে উত্কীর্ণ একটি সিল। ‘শ্রী শ্রী মহাসামন্ত শশাঙ্ক দেবস্য’ পদবন্ধে উল্লিখিত স্থানীয় কোনো শাসকের নাম। তিনিই শশাঙ্ক, প্রথম জীবনে যাঁর পদ ছিল মহাসামন্ত; যা সামন্ত রাজাদের মধ্যে তাঁর উপযুক্ত শক্তিমত্তার পরিচয় বহন করে। তথ্যপ্রমাণ যাচাই করলে দেখা যায়, প্রাচীন বাংলার ইতিহাসে স্থিতিশীল সময় তেমন একটা আসেনি। গুপ্ত আমলের শক্তিশালী শাসনে অপেক্ষাকৃত শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় থাকলেও সেটা ক্ষণস্থায়ী। হূণ নামক এক দুর্ধর্ষ পাহাড়ি জাতির আক্রমণে গুপ্ত সাম্রাজ্য ছত্রখান হয়ে যাওয়ার পর সমগ্র উত্তর ভারতজুড়ে অনেকগুলো ছোট ছোট রাজ্যের উত্থান ঘটে। এই সময়ের বাংলার ইতিহাসের স্বরূপ উদ্ঘাটনে আমাদের দক্ষিণ-পূর্ব বাংলার…

Read More

পানিপথের সেই দিনগুলো…

কল্পনাবিলাসী সমরনায়ক হিসেবে জীবনের শুরুতেই অনেক ধাক্কা খেয়ে থমকে যেতে পারত জহিরউদ্দিন মোহাম্মদ বাবরের জীবন। কিন্তু তিনি পরিস্থিতির সঙ্গে আপস করলেও নীতির সঙ্গে করতে পারেননি। সব প্রতিকূলতা জয়ের মাধ্যমে সামনে এগিয়ে যেতে চেষ্টা করেছেন। একটি ক্ষুদ্র প্রশাসনিক এককের ক্ষমতা থেকে বিচ্যুত হয়েও সংকল্পচ্যুত হননি। নিজ দেশে পরবাসী বাবর শেষ পর্যন্ত ঠিকানা খুঁজে নিয়েছেন ভারতবর্ষে এসে। এখানে তিনি নতুন করে শুরু করেছেন জীবন। একেবারে নতুন দেশ, আনকোরা পরিবেশে আর অনেক নতুন স্বপ্ন, যার শুরুটা ইব্রাহিম লোদীর বিরুদ্ধে সংগ্রামের সফলতা নিয়ে। দুর্বল শাসনে জনরোষের মুখে পড়া ইব্রাহিম লোদী সামরিকভাবে অতটা দুর্বল ছিলেন…

Read More

অস্কারের অন্তরালে লেখক পাঙ্কের দীর্ঘশ্বাস

রাষ্ট্র ব্যবস্থা ও অর্থনীতির ওপর নিয়ন্ত্রণ নিরঙ্কুশ হলে দেশ সামনের দিকে এগিয়ে যায়— এমনটাই মার্কিন দর্শন। তবে এ নিয়ন্ত্রণের প্যারামিটার কতটা, তা নিয়ে আন্তেনিও গ্রামশি, জ্যাক দেরিদা কিংবা হাল আমলে নোম চমস্কির প্রশ্ন দেদার। সম্প্রতি অস্কারের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যমতে, এবারের একাডেমি অ্যাওয়ার্ডে এক অর্থে দ্য রেভেন্যান্টের জয় জয়কার। বিশেষ করে অ্যাক্টর ইন আ লিডিং রোল, সিনেমাটোগ্রাফি, ডিরেক্টিং, অ্যাক্টর ইন আ সাপোর্টিং রোল, কস্টিউম ডিজাইন, সাউন্ড এডিটিং, ফিল্ম এডিটিং, সাউন্ড মিক্সিং, প্রডাকশন ডিজাইন, মেকআপ অ্যান্ড হেয়ার স্টাইলিং এবং ভিজুয়াল এফেক্টে দ্য রেভেন্যান্টের ধারেকাছে কোনোটি নেই। কিংবদন্তি অভিনেতা লিওনার্দো ডি’ক্যাপ্রিওকে পুরস্কৃত করার…

Read More

কোয়েলহোর কলমে মাতা হারির ফিরে আসা

মরতে হয়েছিল মাতা হারিকে। ফরাসি সৈন্যদের হাতে প্রাণ দেয়ার আগে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে জার্মানদের হয়ে গুপ্তচরবৃত্তির। একজন নন্দিত নর্তকী এ দেশ থেকে সে দেশ ঘুরে বেড়াবেন, সেটাই স্বাভাবিক। যেমন এখনকার দিনে ম্যাডোনা থেকে শুরু করে শাকিরা, জেনিফার লোপেজ, টেইলর সুইফট কিংবা সেলেনা গোমেজ পর্যন্ত ভৌগোলিক সীমার ধার না ধেরে বিশ্বের সব প্রান্তে প্রায় সমান জনপ্রিয়। মাতা হারির জন্মটা বোধহয় বড্ড অসময়ে। সর্বৈব জনপ্রিয়তাকে পুঁজি করে কোথায় তার ওই যুগের ম্যাডোনা কিংবা শাকিরা হওয়ার কথা, সেখানে সেটাই সহাস্যে তার প্রাণদানের উপলক্ষ হবে কে জানত। আর বলতে গেলে গুপ্তচরবৃত্তির দায়টা স্বীকার-অস্বীকারের…

Read More

শিক্ষায় ভ্যাট, পে-স্কেল ও আন্দোলনের যৌক্তিকতা

নতুন বেতন কাঠামো প্রণয়নের সঙ্গে সঙ্গে সরকারি কর্মচারী-কর্মকর্তাদের একাংশের বাঁধভাঙা উল্লাস, বামদলগুলোর শ্রেণীভেদ দূরীকরণের দাবিতে প্রেস ক্লাবের সামনে কর্মসূচি আর শিক্ষকদের স্বতন্ত্র পে-স্কেলের দাবি একসঙ্গেই উঠেছে। প্রত্যেকে পক্ষে বিপক্ষে বলতে পারেন, তবে প্রেক্ষাপট ভিন্ন। বাংলাদেশের বর্তমান রাজনৈতিক, সামাজিক কিংবা সাংস্কৃতিক সংবাদের দিকে যদি দৃষ্টি দেয়া যায়, তবে ঘুরে ফিরে এ বিষয়গুলোর ব্যাখ্যা মিলবে সুন্দরভাবেই। বিশেষ করে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের ফি-বেতনে ভ্যাট আরোপ এবং শিক্ষকদের বেতন কাঠামো ও মর্যাদার প্রশ্নে বলা যায় দেশ এখন উত্তাল। যে যা-ই বলুক, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের আন্দোলন অনেক দিক থেকেই যৌক্তিক। বিশেষ করে মানুষ গড়ার কারিগর শিক্ষকদের…

Read More

তেলের দরপতন ও ভেনিজুয়েলার বিপন্ন জনজীবন

মাস চারেক আগে সিএনএনের বিশ্লেষণে প্যাট্রিক গিলেস্পি দাবি করেছিলেন, পাঁচটি কারণে ভেনিজুয়েলার অর্থনীতিতে শনির দশা আসন্ন। কিন্তু তার বিপরীতে মাদুরো সরকারের দমননীতি দেখে তখন যে কেউ মনে করতেন যে, তাদের বৃহস্পতি বেশ তুঙ্গে। গিলেস্পি দেখিয়েছিলেন, তেলের দরপতনে কেউ যদি পপাত ধরণীতল হয়, তাহলে তালিকার শীর্ষে থাকবে ভেনিজুয়েলার নাম। অর্থনীতি পুরোপুরিই নির্ভরশীল তেলের ওপর; তাই ২০১৩-১৪ সালের দিকে যখন ব্যারেলপ্রতি তেলের দাম ১০০ ডলারের উপরে, তখন তাদের পায় কে। কিন্তু বিধি বাম। প্রায় এক যুগের মধ্যে প্রথমবারের মতো হঠাৎ করে সেই দাম যখন ব্যারেলপ্রতি ২৮ দশমিক ৩৬ ডলারে গিয়ে নেমেছে, সবার…

Read More

জিপিএ ৫ পাওয়াই কি সবকিছু?

প্রতি বছর দেখা যায় বেশ কয়েকটি দুশ্চিন্তার পসরা সাজিয়ে আসে উচ্চ মাধ্যমিকের ফলাফল। মাধ্যমিক কিংবা পিএসসি-জেএসসি পরীক্ষার তুলনায় এক্ষেত্রে সবার কপালে চিন্তার ভাঁজটা একটু বেশিই দেখা যায়। অভিভাবকরা যেমন ভাবতে থাকেন, তার সন্তান ভালো ফলাফল অর্জন করার নামান্তরে জিপিএ ৫ মতান্তরে সোনালি জিপিএ ৫ পাবে কিনা? সন্তানরা দুর্ভাবনায় ঘুম হারাম করে ফেলে যে জিপিএ ৫ না পেলে তাদের কী ধরনের যন্ত্রণা পোহাতে হবে, মা-বাবার কাছে কী ধরনের বকুনি খেতে হবে, কতটা অন্ধকার ভবিষ্যতের মুখে পড়তে হবে। আর নীতিনির্ধারক থেকে শুরু করে সংশ্লিষ্টরা ভাবতে থাকেন, এত শিক্ষার্থী জিপিএ ৫ পাচ্ছে, এতজন…

Read More

বাংলায় প্রথম সশস্ত্র বিপ্লব

ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি বাংলা থেকে ভারতবর্ষের নানা স্থানে আধিপত্য বিস্তার করে। শুরু থেকে নানা স্থানে তাদের লুটপাট ও হত্যাকাণ্ড স্থানীয় জনগোষ্ঠীর তীব্র বিতৃষ্ণার কারণ হয়। বলতে গেলে পলাশী যুদ্ধের পরপর প্রথম বিদ্রোহী হয়ে উঠেছিলেন বাংলার কৃষকরা। তারা যথাযথ মূল্যে তাদের ফসল বিক্রি করতে পারেননি, পাশাপাশি একের পর এক খাজনা বৃদ্ধি মৃত্যুফাঁদে রূপ নিয়েছিল। তবে পরাধীনতার প্রায় শতবর্ষ পরে এসে প্রথমবারের মতো শক্তিশালী বিপ্লব ঘটাতে সক্ষম হয়েছিলেন এ দেশের সাহসী সৈনিকরা। পাশাপাশি অনেক দেশপ্রেমিক রাজা ও স্থানীয় শাসক বিপ্লবে অংশ নেয়ায় পুরো ভারতবর্ষে ইংরেজ শাসনের ভিত নড়ে গিয়েছিল। তবে ব্রিটিশবিরোধী স্বাধিকার…

Read More

রানী ভবানীর গল্প

জনশ্রুতি, লোককথা ও নন্দিত গাথাগুলোয় যতটা পরিচিত, ইতিহাসের পাতায় ঠিক ততটাই অস্পষ্ট ও বিস্মৃত এক নাম রানী ভবানী। এই স্মৃতি-বিস্মৃতি ও পরিচিতির দোলাচল থেকে মূল বাস্তবতা বের করে আনার যে দায়, তা স্বেচ্ছায় কাঁধে তুলে নিয়েছিলেন নন্দিত গবেষক অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়। তিনি রানী ভবানী শীর্ষক গ্রন্থ রচনায় হাত দিয়েছিলেন ১৩০৪ সনে। নাটোরের তত্কালীন মহারাজা জগদীন্দ্রনাথ রায় এ গ্রন্থ রচনার ক্ষেত্রে প্রণোদনা দিয়েও শেষ পর্যন্ত পিছিয়ে এসেছিলেন। জনমনে রানী ভবানীকে নিয়ে যথেষ্ট আবেদন রয়েছে। জনগণের হিসাবে তিনি একাধারে বিপ্লবী, ঔপনিবেশিক শাসনের বিরুদ্ধে প্রথম প্রতিরোধকারীদের একজন এবং জনহিতৈষী শাসক। ইতিহাস থেকে জানা যায়,…

Read More

শিশুখাদ্যে ঝুঁকিপূর্ণ খেলনা কেন?

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে শুরু করে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান শিশুখাদ্যের প্রকৃতি ও গুণগত মানের একটা স্ট্যান্ডার্ড দাঁড় করিয়েছে। এক্ষেত্রে সহজপাচ্য, পুষ্টিকর ও সুস্বাদু খাবারগুলোকে অগ্রাধিকার দেয়া হলেও তৃতীয় বিশ্বের বেশির ভাগ দেশে মানা হচ্ছে না এ মানদণ্ড। ফলে সেখানে নানা ধরনের চিপস, ক্ষতিকর উপাদানে তৈরি চকোলেট, চিত্তাকর্ষক রঙে রঙিন ওয়েফারসহ হরেক রকমের খাবারে বাজার হয়ে গেছে সয়লাব। বিক্রিবাট্টা বেশ ভালো হওয়ায় বিভিন্ন বিপণিবিতানে দেখা যায় এসবই থরে থরে সাজানো। চিত্তাকর্ষক ও লোভনীয় মোড়কের পাশাপাশি শিশুদের আকৃষ্ট করতে এসব পণ্যে উপহার হিসেবে দেয়া হচ্ছে নানা ধরনের খেলনা। নগরীর বিভিন্ন স্থানে সেঁটে…

Read More