তারিখ ই শেরশাহী’ অবলম্বনে  ‘শের শাহ’

দোর্দণ্ড প্রতাপশালী মোগল সাম্রাজ্যের ঠিক শুরুতেই একটা ছন্দপতন। পরাক্রমশালী সাম্রাজ্য বলতে গেলে হঠাৎ একটু হোঁচট খায়, পা পিছলে পড়ে একজন কুশলী আফগান যোদ্ধার কাছে। তিনিই শেরশাহ (১৫৪০-১৫৪৫)। পিতৃপ্রদত্ত নামে ফরিদ কিংবা তারপর শেরখান যে নামেই ডাকা হোক না কেনো তিনি ভারতবর্ষের সবচেয়ে সফল সম্রাটদের একজন, পাশাপাশি শূর বংশের প্রতিষ্ঠাতা। দিল্লি কিংবা আগ্রা থেকে সেই বিহারের সাসারাম কতটা দূর। সেখানকার জায়গিরদার হাসান খান শূরের ঔরষে তাঁর জন্ম ১৪৭২ সালের দিকে। বাহলুল লোদির রাজত্বকালেই জন্ম হয়েছিল শের শাহের। প্রথমে তাঁর নাম রাখা হয় ফরিদ খান। শৈশব থেকে স্বাধীনচেতা ফরিদের আর দশজনের মতো…

Read More

আমার যত বই

শুরুতে কিছুটা নির্লজ্জ আত্মপ্রচার কিংবা নিজের কথা বলে নেয়া যাক। কারণ লেখককে চেনা না গেলে তার লেখা সম্পর্কে ধারণা করা কঠিন। শৈশবে খুব সম্ভবত যখন পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী বাংলার শিক্ষক ফখরুল স্যার একটা রচনা লিখতে দিয়েছিলেন। ‘আমার জীবনের লক্ষ্য’। বন্ধুবান্ধবের সবাই যখন ডাক্তার, ইঞ্চিনিয়ার, পুলিশ কিংবা আইনজীবি হওয়ার স্বপ্নের বিভোর বরাবরের মতো আমি সেখানেও ভিন্ন স্রোতের যাত্রী। আমি সেখানে লিখেছিলাম ‘শিক্ষক হতে চাই’। ২০ নম্বরের মধ্যে খুব সম্ভবত ১০ কিংবা ১৩ পেয়েছিলাম। তবুও স্বপ্নের সঙ্গে আপোস করার ইচ্ছে ছিলো না। ঘরে ঢোকার সময় যেমনিভাবে পাপোশে পা মোছার কথা মনে থাকে…

Read More