আমার ম্যাট হেইগ পাঠ

পাঠক হিসেবে Matt Haig এর লেখালিখির সঙ্গে আমার পরিচয় Reasons to Stay Alive বইটা পড়ার মধ্য দিয়ে। একটা সময় অনেক হাইপ তোলা বইটি যখন পড়ে শেষ করলাম মনে হয়েছিল পর্বতের মুসিক প্রসব। তার থেকে বড় কথা অত নাম করা বইটার উপর বিরক্তি আসার মূল কারণ মোটিভেশনধর্মীতা। তবুও কিছু কোটেশন হৃদয়ে দাগ কাটে। তাই পাঠক হিসেবে লেখক Matt Haig কে পুরোপুরি কচলে খরচের খাতায় ফেলে দিতে পারিনি এক্কেবারে।
নিজে যদি নিছক পাঠক না হয়ে কোনোদিন লেখক হতে পারতাম এমন কিছু কথা লেখার সুযোগ হতে পারত। যেমন আজ হঠাৎ করে সন্ধ্যার পর থেকে ভাবছি যা হঠাৎ মনে পড়লো ম্যাট হেইগে তা পড়েছি। “Maybe love is just about finding the person you can be your weird self with.” কথাটার মর্মার্থ করলে দাঁড়ায় আজ সন্ধ্যার প্রায় দীর্ঘ ঘণ্টাখানেকের চিন্তার কোনো মূল্য নাই। সেটা লিখে গেছেন হেইগ।
তবে হ্যাঁ আমি হেইগের সঙ্গে এজন্য একমত যে “Words, just sometimes, can set you free.”। আর তাই স্ট্যাটাস দিয়ে যাই। কথা বলি, বলার চেষ্টা করি। আর সাহিত্যচর্চার সক্ষমতা যেহেতু নাই মনের সুখে ইতিহাস কিংবা প্রত্নতত্ত্ব নিয়ে পাতার পর পাতা লিখে যাই।
রাত্রিশেষের দিক থেকে হঠাৎ হাতে নিলাম The Midnight Library। জানিনা কোন আকাশ ভরা তারা অপেক্ষা করছে। কিছুটা অন্তত পড়া যাক। তারপর না হয় ভাল-মন্দ যেমনি হোক মন্তব্য করা যাবে। আপাতত পড়তে চাই। দেখতে চাই এটাকে কি আছে!!!!
কারণ লেখার পর একজন লেখকের অনুভূতি কেমন হয় তিনি বলতে পারবেন। তবে পাঠক হিসেবে শুধু এটুকুই জানি পড়তে ভাল লাগে পড়ি। যেমনটা ক্রিকেট ভাল লাগে দেখি, সিনেমা দেখি কিংবা কোনো একটা গান শুনি।
‘এই বইটা পড়তে জানতে পারবেন’ এমনি কোনো জানার আশা নিয়ে পড়িনি, পড়তে চাইও না। শুধু সেটাই পাঠ তালিকায় স্থান দিতে চাই যা পড়তে ভাল কিংবা খারাপ যাই লাগে অন্তত সময়টা তার মতো কেটে যায় আমি কিছু বুঝে ওঠার আগেই।
(Visited 20 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *